মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

দর্শনীয় স্থান

০১) কুকরী মুকরীঃ চরফ্যাসন উপজেলার একটি ইউনিয়ন হচ্ছে কুকরী মুকরী। এই ইউনিয়নটি বঙ্গোপসাগরের কোলঘেষা একটি দ্বীপ ইউনিয়ন। প্রাকৃতিক মনোরম দৃশ্য আর পাখিদের অভয় আরণ্য এই দ্বীপটি। এই দ্বীপে হরিণ বসবাস করে। অপরুপ সৌন্দার্যে মন্দিত এই দ্বীপটি পর্যাটনদের আকর্ষণ করে।এখানে পর্যাটনদের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা আছে।

০২) তারুয়াঃ চরফ্যাসন উপজেলার একটি ইউনিয়ন হচ্ছে ঢালচর। আরএই ইউনিয়নের একটি সুমদ্র সৈকত হচ্ছে তারুয়া। প্রাকৃতিক মনোরম দৃশ্য আর পাখিদের অভয় আরণ্য এই দ্বীপটি। বাংলাদেশের সর্বদক্ষিনে অবস্থিত এই দ্বীপে হরিণ বসবাস করে। অপরুপ সৌন্দার্যে মন্দিত এই দ্বীপটি পর্যাটনদের আকর্ষণ করে।

০৩) বেতুয়া লঞ্চঘাটঃ চরফ্যাসন উপজেলার একটি অন্যতম আকর্ষন হচ্ছে বেতুয়া লঞ্চঘাটঃ। এখানে প্রতিদিন অসংখ্য পর্যাটন বেড়াতে আসে। এখানে একটি অত্যাধুনিক লঞ্চঘাট আছে যেখান থেকে চরফ্যাসন টু ঢাকা আসা যাওয়া করা যায়। এখানে পর্যাটনদের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা আছে।

০৪) জ্যাকব টাওয়ারঃ চরফ্যাসন উপজেলার একটি আকর্ষণ জ্যাকব টাওয়ার। এখানে লাইটিং এর ব্যবস্থা আছে যাহা পর্যাটনদের আকর্ষণ করে।এখানে পর্যাটনদের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা আছে।

০৫) শেখ রাসেল শিশু পার্কঃ চরফ্যাসন উপজেলার একটি অন্যতম শিশুদের বিনোদনের স্থান হচ্ছে শেখ রাসেল শিশু পার্ক। এখানে অনেক গুলো রাইটার আছে এবং প্রযুক্তি নির্ভর ভার্টুয়াল থিয়েটার আছে যাহা পর্যাটনদের আকর্ষণ করে।এখানে পর্যাটনদের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা আছে।

০৬) শহীদ মিনার চত্বরঃ চরফ্যাসন উপজেলার একটি অন্যতম আকর্ষণ শহীদ মিনার চত্বরঃ। এখানে ওয়টার ফ্লো আছে যাহা পর্যাটনদের আকর্ষণ করে।এখানে পর্যাটনদের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা আছে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter